[Close]

মাশরাফি-আশরাফুল দুইজনেই শীর্ষে


একজন বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রথম তারকা, আরেকজন সর্বকালের সেরা অধিনায়ক। মোহাম্মদ আশরাফুল আর মাশরাফি বিন মুর্তজার হাত ধরে কত জয়ের মালা গেঁথেছে টাইগাররা সেসব কখনোই ভোলার নয়। চোটে পড়ে ম্যাশ ক্যারিয়ার থেকে খুইয়েছেন অনেক ম্যাচ, ম্যাচ গড়াপেটার দায়ে আশরাফুল নির্বাসিত দীর্ঘ ৫ বছর আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে।

অবশেষে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আপাতত ঘরোয়া ক্রিকেটের খেলায় ফিরেছেন আশরাফুল। কলাবাগান ক্রিড়া চক্রের হয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এবারের মৌসুমে খেলছেন প্রথম থেকেই।
আন্তার্জাতিক ক্রিকেট সূচীতে ব্যস্ততা না থাকায় মাশরাফিও খেলার সুযোগ পেয়েছেন টুর্নামেন্টে।

মাশরাফির দল আবাহনী লিমিটেড সুপার সিক্স পর্বে খেললেও আশরাফুলের দল বাদ পড়েছে তার আগেই। পয়েন্ট তালিকার তলানীতে থাকায় কলাবাগান ক্রিড়া চক্রকে খেলতে হচ্ছে রেলিগেশন পর্ব।

তবে দল ছাপিয়ে নিজেদের জায়গায় শীর্ষস্থানে দুইজনই। একজন বল হাতে তো আরেকজন ব্যাট হাতে। দীর্ঘ দিনের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আশরাফুলের ব্যাটে চওড়া হাসি দেখা যাবে সেটা হয়তো ডান-হাতি এই ব্যাটসম্যান নিজেও ভাবেনি। তবে সবার ভাবনার বিপরীত ঘটেছে।

লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে আশরাফুল খেলেছেন মোট ২৫২ টি ম্যাচ। ২৪১ ইনিংস ব্যাট করে ২৩টি অপরাজিত ইনিংসসহ ২৫.৫৭ গড়ে তার মোট রান ৫ হাজার ৫৭৬। শতক আছে ১০টি আর অর্ধশতক ২৮টি।

মজার বিষয় হচ্ছে, আশাফুলের ১০টি শতকের পাঁচটিই এসেছে চলতি মৌসুমে। সবশেষ তিন ম্যাচের তিনটিতেই শত রান। ১৩ ম্যাচে এসেছে পাঁচটি শতক আর এক অর্ধশতক মিলে ৬৬.৫০ গড়ে করেছেন মোট ৬৬৫ রান। এবারের আসরে তিন ম্যাচে ছিলেন অপরাজিত, তিন ম্যাচে করতে পারেননি কোনো রান। ১৩ ইনিংসে বাউন্ডারি ছিল ৬৭টি আর ওভার বাউন্ডারি ছিল মোট ৫টি। আজ রোববার বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে রেলিগেশন এড়ানোর ম্যাচে ১৩৭ বলে ১০২ রান করে এক নম্বরে থাকা আনামুল হক বিজয়কে টপকে শীর্ষে উঠে এসেছেন ৩৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

৬৬০ রান নিয়ে দ্বিতীয় নম্বরে রয়েছেন আবাহনীর ওপেনার এনামুল। তৃতীয় স্থানে আছেন ৬৫১ রান নিয়ে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির ভারতীয় ব্যাটসম্যান আশোক ম্যানেরিয়া। যদিও রান সংগ্রাহকের তালিকায় থাকা শীর্ষ ৫ ব্যাটসম্যানেরই সুযোগ আছে আশরাফুলকে টপকে যাওয়ার।

তাতে কি। তবুওতো রান সংগ্রাহকের তালিকায় শীর্ষে নিজের নাম লেখানোর স্বাদ নিয়েছেন ৫ বছর নির্বাসিত থাকা আশরাফুল। এতক্ষণে নিশ্চয় নির্বাচকদেরও ভাবনায় জায়গা করে নিয়েছেন এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন গতবছরই। কথা কম উঠেনি মাশরাফির পারফর্ম নিয়েও। তবে সব কিছুর জবাব তিনি মাঠেই দিয়েছেন। সে বছরই রংপুর রাইডার্সের হয়ে তুলে নিয়েছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) শিরেপাও। চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের মৌসুমে বল হাতে নিজেকে নিয়ে গেছেন ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

ক্যারিয়ারের শেষ দিকে এসে এমন বাজিমাত মনে করিয়ে দিবে তার অবসরের পরও। ছোটফরম্যাটের ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও খেলে যাচ্ছেন একদিনের ক্রিকেটে নিয়মিত।

চলতি ঢাকা লিগের ১৪ ম্যাচে নিয়েছেন ৩৫ উইকেট! তার পরেই ১১ ম্যাচে ২৮ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন মোহামেডানের কাজী অনিক। তরুণ এই পেসারের দল বাদ পড়েছে প্রথম পর্ব থেকেই। এরপর যারা আছে তাদের আর সুযোগ নেই বললেই চলে। তাই চলতি মৌসুমে মাশরাফিকে ছাড়িয়ে যাওয়া অসম্ভব।

চলতি মৌসুমে ১৪ ম্যাচে ১১৪.৫ ওভার বল করে রান দিয়েছেন ৫০৮। মেডেন ওভার আছে নয়টি। আছে এক ম্যাচে ৬ উইকেটসহ ডাবল হ্যাট্রিক। দুই ম্যাচে ৫ উইকেট করে আর দুই ম্যাচে ৪টি করে উইকেট নিয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী তারকা।

The post মাশরাফি-আশরাফুল দুইজনেই শীর্ষে appeared first on Ekushey24.com.

Bangla24hour.com © 2017