[Close]

কারাগারে যেসব সুবিধা দেওয়া হবে সালমানকে!


১৯ বছরের প্রতীক্ষার পর অবশেষে ঘোষণা হলো আলোচিত সেই কৃষ্ণহরিণ হত্যা মামলার রায়। সেখানে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন বলিউডের সুপারস্টার সালমান খান। পাঁচ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে তাকে।

এরইমধ্যে বলিউডের অন্যতম দামি তারকা সালমানকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে রাজস্থান রাজ্যের যোধপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে। সেখানেই আপাতত থাকবেন তিনি। পাবেন না বিশেষ কোনো সুবিধা। সাধারণ কয়েদিদের মতোই তার সঙ্গে আচরণ করবে কারাগার কর্তৃপক্ষ।

শোনা যাচ্ছে আগামীকালই জামিন পেতে পারেন সালমান খান। তবে আজকের রাতটুকু তাকে কাটাতে হবে সাধারণ কয়েদিদের মতোই। বিছানা হবে মেঝেতে। ‘বজরঙ্গি ভাইজান’-কে একটি সিলিং ফ্যান দেওয়া হবে। কেননা যোধপুরে এখন অনেক গরম।

কারাগারের কর্মকর্তারা জানান, ওই কারাগারে সকাল ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে কয়েদিদের চা-নাস্তা দেওয়া হয়। ওয়ার্ডের ভেতরে তাদেরকে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত তালাবদ্ধ করে রাখা হয়। এরপর তারা সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত কারাগারের ভেতরে ঘুরতে পারবেন। সে সময়ই রাতের খাবার পরিবেশন করা হয়।

কারাগারের কর্মকর্তারা জানান, আর সব কয়েদির মতোই সালমানকে দেখা হবে। এই অভিনেতাকেও কারাগারের নিয়ম-কানুন মেনে চলতে হবে। ‘বডিগার্ড’-খ্যাত এই অভিনেতাকে রাখা হবে ধর্ষণ মামলার আসামি কথিত ধর্মগুরু আসারামের পাশের সেলে। তবে সেখানে থাকবে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৮ সালে ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’ সিনেমার শুটিংয়ের জন্য রাজস্থানে যান সালমান, সাইফ আলী খান, সোনালি বান্দ্রে, নিলম ও টাবুসহ অন্যান্য সহশিল্পীরা। ১ এবং ২ অক্টোবর যোধপুরের কাছে কঙ্কনি গ্রামে তারা দুটি বিরল প্রজাতির কৃষ্ণ হরিণ শিকার করেন বলে অভিযোগ উঠে। এরপর সরকার বাদী মামলাও হয়। সেই মামলায় অন্যরা বেখসুর খালাস পেলেও শাস্তির মুখে সালমান খান।

এদিকে বেআইনিভাবে জঙ্গলে ঢোকার অভিযোগে সালমান খান আর অন্য তিন তারকার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৯ নম্বর ধারাতে মামলা এখনো চলছে। সেটির রায়ও খুব দ্রুত হবে বলে জানা গেছে।

<>

Bangla24hour.com © 2017