[Close]

দুই ছাত্রের সঙ্গে এক সাথে শারীরিক মিলনে, ম্যাডাম গ্রেফতার জানুন বিস্তারিত


দুই ছাত্রের সঙ্গে অনৈতিক শারীরিক মিলনে জড়িয়ে পড়ার ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় পুলিশের হাতে গ্রেফতার এক শিক্ষিকা৷ অভিযুক্ত শিক্ষিকার নাম সামান্তা সিওট্টা (৩২)। সামান্তা ক্যালিফোর্নিয়ার বিউমন্টের বাসিন্দা। তিনি বিউমন্টের হাইস্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন৷ গত বছরের জুন মাস থেকে ছাত্রের সঙ্গে ক্রমাগত শারীরিক মিলনে জড়াতেন। তবে, সেই ছাত্রটি যাতে সবকিছু ফাঁস না করে দেয় সেই কারণে ক্রমাগত চাপ দিতেন মিস সিওট্টা৷ এমনকি ওই দুই ছাত্রকে ব্ল্যাকমেল করত বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। মাসে অন্তত পাঁচবার তিনজন একসঙ্গে মিলিত হতেন।







প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে ভুল করে একটি ভিডিও ফাঁস করে দেয় ওই ছাত্রটি৷ মদ্যপান করে একেবারে নেশায় বুঁদ ছিল ছাত্রটি৷ আর সেই কারণে ভুল করে শারীরিক মিলনে সেই ভিডিওটি তার এক বন্ধুকে পাঠিয়ে ফেলে৷ তারপরই গোটা ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে৷ ভিডিওটিতে মেয়েটিকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখা গেছে৷







এরপরই পুলিশ ঘটনাটির তদন্ত শুরু করলে ছাত্রটি সমস্ত কিছু স্বীকার করে নেয়৷ গত বছরের শেষভাগে তিনি পুলিশের জালে আটকা পড়েন। বর্তমানে বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন।

ওই শিক্ষিকা বিবাহিত এবং দুই সন্তানের মা৷ অতিরিক্ত ক্লাসের নাম করে আলাদা করে নিয়ে যেতেন ওই ছাত্রকে৷ এরপরই দু’জনে মদ্যপান করে উদ্দাম শারীরিক মিলন মেতে উঠতেন তারা৷ মদ্যপান ও উদ্যাম জীবন তাকে এই পথে আনে।







হেভি ডট কম সামান্তার আচরণ নিয়ে একটি বিশ্লেষণ নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। যেখানে কীভাবে সামান্তা ছাত্রদের ‘ম্যানেজ’ করে এ পথে নিয়ে আসেন সে অম্পর্কে বিষদ তুলে ধরা হয়েছে। ছাত্ররা একসময় তার নিকট ব্ল্যাকমেইলের শিকার হন। তবুও তাদের ছেড়ে দিতেন না তিনি। বলা যায় শুধু শারীরিক মিলন নয় মানসিকভাবেও সামান্তা অসুস্ত ছিলেন।







<>

Bangla24hour.com © 2017