কোলের শিশু নিয়ে চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলো লিজা!

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে নির্যাতন সইতে না পেরে শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে এক নারী আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় স্বামী ও শ্বশুরকে আটক করেছে পুলিশ।







মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) সকালে ঢাকাগামী যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে ঐ নারী আত্মহত্যা করে বলে পুলিশ জানায়। নিহত মা-সন্তান হলেন উপজেলার দামাইল গ্রামের রাজীব ঢালীর স্ত্রী লিজা আক্তার সাথী (২৫) ও তাদের সন্তান ইয়াসিন আহম্মেদ ঢালী (৩)।







গফরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামছুল আলম খোকন ও এলাকাবাসী জানায়, প্রায় ৫ বছর আগে উপজেলার সালটিয়া ইউনিয়নের ধামাইল এলাকার রাজিব ঢালী’র সঙ্গে বিয়ে হয় স্থানীয় গফরগাঁও ইউনিয়নের মির্ধা বাড়ির শাহজাহান মির্ধার মেয়ে লিজা আক্তারের। তাদের সংসারে ইয়াসিন ঢালী নামে তিন বছর বয়সী এক শিশু সন্তান ছিলো। পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে প্রায়ই শাশুড়ি’র সঙ্গে লিজা আক্তারের ঝগড়া হতো। সোমবারও একমাত্র সন্তান ইয়াসিন ঢালী’র অসুস্থতা নিয়ে বউ-শাশুড়ির মধ্যে ঝগড়া হয়। এরই জের ধরে শিশু সন্তানসহ ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন লিজা আক্তার।







অপরদিকে নিহত লিজা আক্তারের বাবা শাহজাহান মিয়ার উদ্বৃতি দিয়ে গফরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শামসুল আলম খোকন জানান, লিজার কিছুটা মানসিক সমস্যা ছিলো। হয়তো এ কারণেই সে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।







রেলওয়ে থানার ওসি আব্দুল মান্নান ফরাজী জানান, মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে গফরগাঁও রেলওয়ে স্টেশন থেকে ৪শ গজ দক্ষিণে দামাইল নামক স্থানে ঢাকাগামী যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে পড়ে মা-ছেলে মারা যায়। ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জেরে এই আত্মহত্যা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

এ ঘটনায় স্বামী রাজিব ঢালী ও শ্বশুর ফারুক ঢালীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। আত্ম হত্যায় প্ররোচনায় জড়িত থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান ।







<>

Bangla24hour.com © 2017