আরো এক মহানুভব সিদ্ধান্ত অনন্ত জলিলের

কদিন আগেই পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী রাজধানীতে দুই বাসের চাপায় হাত হারিয়ে মৃত্যুবরণ করা কলেজ ছাত্র রাজীব হোসেনের ছোট দুই ভাই মেহেদি হাসান ও আবদুল্লাহর দায়িত্ব নিয়েছেন অভিনেতা ও ব্যবসায়ী অনন্ত জলিল। রাজীবের মৃত্যুর খবর শুনে নিজের জন্মদিনেই তার দুই ভাইয়ের দায়িত্ব নেওয়ার আগ্রহের কথা জানান অনন্ত। যেমন কথা তেমন কাজ। গত রোববার সাভারের হেমায়েতপুরে নিজস্ব ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে তাদের ডেকে নিয়ে প্রতিশ্রুতি রাখলেন তিনি। এর রেশ কাটতে না কাটতেই আরো এক মহানুভব ঘোষণা দিলেন তিনি।

পাঁচজন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীকে নিজের প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বড় মনের পরিচয় দেওয়া এই তারকা। দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী বিতার্কিকদের নিয়ে বিতর্ক আয়োজনকে সফল করে তোলার জন্য আর্থিক অনুদান দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন অনন্ত। সম্প্রতি তার এ ঘোষণায় এফডিসিতে উপস্থিত দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা আবেগে আপ্লুত হন।

দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের সঙ্গে অনন্ত
এ বিষয়ে অনন্ত বলেন, দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের যে জ্ঞান, বুদ্ধি, মেধা রয়েছে, তা অনেক স্বাভাবিক মানুষের নেই। সব সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে উন্নয়নের মূলধারায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের সম্পৃক্ত করতে সরকারের পাশাপাশি তিনি বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ের পাশাপাশি তাদের কথা মন দিয়ে শোনেন অনন্ত জলিল।

উল্লেখ্য, শুরু হলো দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা ‘যুক্তির আলোয় দেখি’। এই প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ব্যবসায়ী, চিত্রনায়ক, পরিচালক ও প্রযোজক অনন্ত জলিল।

রাজীবের দুই ভাইয়ের সঙ্গে অনন্ত
প্রথম দিনে বিতর্কে অংশ নিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী বিতার্কিকেরা। সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী। এফডিসির একটি ফ্লোরে আয়োজিত ‘যুক্তির আলোয় দেখি’র প্রথম দিনের বিতর্ক উপভোগ করেন অনন্ত জলিল।

<>

Bangla24hour.com © 2017