শুভশ্রীকে সাংবাদিকের প্রশ্ন, সেটে শাকিবের ‘চালবাজি’র শিকার হননি? উত্তরে যা বললে তিনি..

কিছু দিন আগে বিয়ে করলেন শুভশ্রী। এর পরই কলকাতায় মুক্তি পেল তার অভিনীত ছবি ‘চালবাজ’। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন ঢালিউড কিং শাকিব খান। সাফটা চুক্তির মাধ্যমে ছবিটি গতকাল বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে। এসব নিয়ে কলকাতা থেকে কথা বলেছেন শুভশ্রী…
বিয়েটা করেই ফেললেন?
কিছু বলার নেই। হয়ে গেল, ব্যস!বাংলাদেশে আপনার অনেক ভক্ত। বিয়ের খবরে অনেকেই কষ্ট পেয়েছেন!(হাসি) তাই নাকি! খুব ভালো তো। যারা কষ্ট পেয়েছেন, তাদের উদ্দেশে বলছিÑ থ্যাঙ্ক ইউ সো মাচ!
বিয়ের দিন কিন্তু বেশ লাগছিল আপনাকে…থ্যাঙ্ক ইউ! পূজা প্রসাদের ডিজাইন করা ড্রেস পরেছিলাম সেদিন।

বিয়ের পর ‘চালবাজ’ প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি। এটি নিয়ে বলুন?খুব মজার একটা গল্প দেখানো হয়েছে ছবিতে। সেটা নাম শুনে নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন। ছবির হিরো (শাকিব খান) পুরো গল্পে নানা চালবাজি করতে থাকে। এর পেছনে কোনো নোংরা অর্থ নেই কিন্তু। আসলে ও সব কিছুর মধ্যেই টাকার ডিল করে আর কি! সব মিলিয়ে সেই রকম ছবি। দর্শকের ভালো লাগছে। ভালো প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি। গতকাল ঢাকায় ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে।
দ্বিতীয়বার শাকিব খানের সঙ্গে জুটি বাঁধলেন। সেটে শাকিবের ‘চালবাজি’র শিকার হননি?(হাসি) সেটে ওর চেয়ে চালবাজিটা আমিই বেশি করি। ব্যক্তিগত জীবনে শাকিব অসম্ভব শান্ত। কাজের প্রতি অসম্ভব ডেডিকেটেড। ও এত কম কথা বলে, আপনি ভাবতেও পারবেন না! আপনি যদি ওর সঙ্গে ১০০টা কথা বলেন, উত্তরে ও হয়তো পাঁচটা কথা বলবে।

ইদানীং প্রায়ই একটা কথা শোনা যাচ্ছে, বাংলা ছবি নাকি চলছেই না…গত বছরে আমার ‘বস টু’ই কিন্তু সবচেয়ে বড় হিট ছিল! (একটু থেমে) এটাকে কিন্তু আবার অহঙ্কার বলে ধরে নেবেন না। প্রতিটা ছবিরই একটা ভাগ্য থাকে। আমি ছবি করছি বলেই, সেটা সুপারহিট হবেÑ এমনটাও ভেবে নেওয়ার কোনো মানে হয় না। কোনো অভিনয়শিল্পীর ক্যারিয়ারের সব ছবি হিট হয় না। আমি ভাগ্যবান যে, ক্যারিয়ারে বেশ কয়েকটা সুপারহিট ছবি রয়েছে।
যৌথ প্রযোজনার ছবি সম্পর্কে মতামত কী?যদি পরিকল্পনামাফিক লাগাতার যৌথ প্রযোজনার ছবি তৈরি করা যায়, তা হলে এর চেয়ে ভালো আর কিছু হতে পারে না! কিন্তু এ ক্ষেত্রে আমাদের আরও বেশি ফোকাস হতে হবে।

‘এসভিএফ’-এর সঙ্গে আপনার সমস্যাটা এখনো মেটেনি, তাই না?আই ডোন্ট হ্যাভ এনি প্রবলেম উইথ এনিবডি! হ্যাঁ এটা সত্যি, ওদের সঙ্গে আমার কাজ করা হয় না। (একটু ভেবে) টার্মস অ্যান্ড কন্ডিশন নিয়ে বেশ কিছু সমস্যার কারণেই কাজটা আর করা হয়ে ওঠে না। এটা ছাড়া আমার ওদের সঙ্গে সম্পর্ক খুবই ভালো। শোনা যায়, তাদের কোনো প্রজেক্টে আপনাকে যেন কাস্ট না করা হয়, তা নিয়ে নাকি এক
রাজনৈতিক দলেরও চাপ রয়েছে। এটা কি সত্যি?এ ব্যাপারগুলো আমাকে কোনোভাবেই অ্যাফেক্ট করে না। ব্যক্তিগত জীবনে আমি হ্যাপি গার্ল। স্রোতের সঙ্গে ভেসে চলতে ভালোবাসি। নেগেটিভ কোনো বিষয়কে আমলে নিতে চাই না। তা হলে আমি নিজেই নেগেটিভিটিতে ভরে যাব। আর একটা কথাÑ আমি খুব বিশ্বাস করি, কেউ কারো ভাগ্য কেড়ে নিতে পারে না। ভাগ্যে আমার যেখানে পৌঁছনো লেখা রয়েছে, সেখানে পৌঁছনো থেকে কেউ আটকাতে পারবে না।

আপনি ভাগ্যে বড্ড বিশ্বাস করেন তাই না?আই বিলিভ ইন ডেস্টিনি! বর্তমানে বাঁচতে ভালোবাসি। ভবিষ্যতে কী হবে, কোন প্রজেক্টে কাজ করব, ‘এসভিএফ’-এর সঙ্গে কাজ হবে কিনা এগুলো আমার কাছে ম্যাটারই করে না! এতগুলো বছর তো ‘এসভিএফ’ ছাড়াই কাজ করলাম। এতগুলো হিটও দিলাম! তাই ব্র্যান্ড ব্যাপারটা আমার কাছে ম্যাটার করে না। আমাদের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিটা বড্ড ছোট। আমরা সবাই পরিবারের মতো। আমার মধ্যে যতদিন ট্যালেন্ট থাকবে এবং দর্শক যতদিন আমাকে ভালোবাসবেন কাজ করে যাব।

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি থেকে শুরু করে সংবাদমাধ্যম একটা সময় আপনার ব্যক্তিগত জীবন নিয়েতো কম আলোচনা হয়নি…আমি পজিটিভিটি নিয়ে বাঁচতে ভালোবাসি। দেখুননা, দুবাইয়ে বিয়েবাড়িতে গিয়ে শ্রীদেবী মারা গেলেন। আমাদের জীবনটাই এমন! জীবনে একবার যখন এন্ট্রি নিয়েছি, এগজিট নিতেই হবে। এগজিট গেটটা জীবনের কোন মোড়ে আমার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে, সেটা আমি নিজেও জানি না। তাই বিতর্ক-সমালোচনা ব্যাপারগুলো আমাকে ছুঁতে পারে না।

Bangla24hour.com © 2017