কারাগার থেকে নেতাকর্মীদের যে নির্দেশ দিলেন খালেদা জিয়া

গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের সাহসের সঙ্গে আন্দোলন চালিয়ে যেতে দলের নেতাকর্মীদের বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।








তিনি জানান, বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন-যতো জুলুম নির্যাতন হোক না কেন, গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য, মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য আন্দোলন-সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে।

শনিবার শনিবার সন্ধ্যায় নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন মির্জা ফখরুল।








এসময় বিএনপির কারাবন্দি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খুবই খারাপ বলেও সাংবাদিকদের জানান তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খুবই খারাপ হয়ে পড়েছে। আজকে আমরা তাকে যতদূর দেখেছি, তাতে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছি। তিনি যে হাসপাতালে যেতে চেয়েছেন, সেখানে রেখে তার চিকিৎসা প্রয়োজন। তার পছন্দ ইউনাইটেড হাসপাতাল।








মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার বাম হাত আস্তে আস্তে শক্ত হয়ে যাচ্ছে। বাম হাতের ওজনও বেড়ে গেছে। বাম পা থেকে শুরু করে গোটা বাম দিক পেছনে পর্যন্ত ব্যথা বেড়ে গেছে। এখন সাধারণভাবে হাঁটাচলা করাও তার জন্য মুশকিল হয়ে পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, দুপুরে ডাক্তাররাও বলেছেন, এ অবস্থা চলতে থাকলে এক সময় তার প্যারালাইসিসের মতো হয়ে যেতে পারে। তার ডান চোখ লাল হয়ে গেছে। ডাক্তাররা আজও বলেছেন, তার যে অসুখ, এটা বেড়ে গেলে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।








খালেদা জিয়া
এর আগে শনিবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে কারাগারে প্রবেশ করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা হলেন, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও নজরুল ইসলাম খান। প্রায় ১ ঘণ্টা ১০ মিনিট অবস্থান করে ৫ টার দিকে তারা কারাগার থেকে বেরিয়ে আসেন।

Bangla24hour.com © 2017